News

পুলিশের সামনেই যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ, পুলিশ বলছে গণপিটুনি

বগুড়ায় বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে পুলিশের উপস্থিতিতে রুবেল প্রামানিক (৩০) নামে এক যুবককে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (৭ মে) দুপুরে শহরের ফুলবাড়ি দক্ষিণপাড়ায় প্রকাশ্যে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। এ ব্যাপারে পুলিশ ও নিহতের পারিবারের পক্ষ থেকে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। নিহতের মা ঝরনা বেগম দাবি করেছেন, তার ছেলে রুবেল পুলিশের সোর্স ছিল। এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের তথ্য পুলিশকে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে তারা তার ছেলেকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে হত্যা করেছে। এছাড়া তার ঘরে লুটপাটও করা হয়েছে। তবে ফুলবাড়ি ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আম্বার হোসেন বলেছেন, রুবেল চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী ছিল। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। ফুলবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আম্বার দাবি করেন, ফুলবাড়ি দক্ষিণপাড়ার সঞ্জীবন আলম সঞ্জুর ছেলে রুবেল চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তার বিরুদ্ধে থানায় তিনটি চাঁদাবাজিসহ চারটি মামলা রয়েছে। চাঁদা না পেলেই সে চাকু মারতো। সোমবার বেলা ২টার দিকে বিক্ষুব্ধ শত শত এলাকাবাসী তাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।তবে নিহতের মা ঝরনা বেগম বলেন, ‘আমারছেলে রুবেল পুলিশের সোর্স ছিল। এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের তথ্য পুলিশকে দেওয়ায় তারা ক্ষুব্ধ ছিল। মাদক ব্যবসায়ীদের ভয়ে সে কিছুদিন ধরে বাড়িতে থাকতো না। রুবেল সোমবার দুপুরে বাড়িতে জাতীয় পরিচয়পত্র নিতে এসেছিল। এ সময় ১০-১৫ জন বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর করে এবং ঘর থেকে তিন ভরি সোনার গহনা ও টাকা লুট করে। এরপর তারা রুবেলকে ধরে নিয়ে যায়। এলাকার আবুল হোসেনের দোকানের সামনে তাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে। এ সময় সেখানে ফুলবাড়ি ফাঁড়ির এসআই শহিদুল ইসলাম থাকলেও তিনি রুবেলকে উদ্ধার করেননি।’ এ প্রসঙ্গে এসআই শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের কাছে কোনও মন্তব্য না করে ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পরামর্শ দেন। রুবেলের বাবা সঞ্জু দাবি করেছেন, এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারি জাইদুল, ডন, রিপন, রক্সি, শামীম, রকি ও শাহীনুর এ হামলা চালিয়েছে। তার নিরাপরাধ ছেলেকে প্রকাশ্যে হত্যা করেছে। তিনি তার ছেলের হত্যার বিচার দাবি করেছেন। তিনি এ ব্যাপারে সদর থানায় হত্যা মামলা করবেন। বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, নিহত রুবেল সন্ত্রাসী ও ছিনতাইকারী। স্থানীয় জনগণ তাকে পেয়ে গনপিটুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ পৌঁছার আগেই রুবেল মারা যায়।

Leave a Reply

*

*